মেহেরপুর জেলায় কিছু জায়গা আছে, যা কিনা দেখতে পার্কের মতো কিন্তু পার্ক নয়।

আমি অন্য জেলায় খুব কম দেখেছি বা শুনেছি যে,এমন স্থানও হয়। যা কিনা পার্ক নয় কিন্তু পার্কের মতো।
ব্যাপারটা খুব আজব লাগছে তাইনা।
তাহলে পুরো লেখাটা পড়ুন
ব্যাপারটা খুব সহজ হয়ে যাবে।

সচারচর দেখা যায় পার্কে অনেক লোক সমাগম,বন্ধু বান্দা,আত্নীয় স্বজন পাড়া প্রতিবেশীদের নিয়ে কিন্তু আমরা পার্কে যায়।
দেখার মতো থাকে বা সচারচর জায়গা গুলো
১.ফুলের বাগান
২.শিশুতোষ খেলার মাঠ
৩.পুকুর
৪.রোলারকোস্টার
৫.বসার জায়গা
৬.গাছপালা ইত্যাদি থাকে।

আচ্ছা এগুলো বলছি কেন,নিশ্চয়ই কোন কারণ আছে ।হ্যাঁ বলছি এই জন্যেই যে,শুধু পার্কে এমন জিনিস গুলো থাকার বাইরে একটা স্থানে এগুলো আছে। মাজার ব্যাপার হলঃপার্কে ঢুকতে গেলে টিকিট কাটা লাগে বা অন্যান্য খরচ লাগে।কিন্তু এই মেহেরপুর জেলায় একটা স্থানে এগুলো উন্মুক্ত।এখন নিশ্চয়ই প্রশ্ন জাগবে এমন হতে পারে, তাহলে বলুন জায়গার নামটা কী?

হ্যাঁ নিশ্চয়ই বলবো।জায়গাটা মেহেরপুর জেলার পৌর কবর স্থান ও ঈদ গাহ মাঠ।ঈদের দিন অনেক লোক জামা হয় এই স্থানে।এবং সেখানে পার্কের মতো লোক জমা হয়।চারিদিকে লোক আর লোক, যে দিক তাকায় সেদিকে লোক।লোক সমাগম অন্যতম একটা জায়গা।তবে এখানে পরিবার নিয়ে বিকেলে অনেক মানুষ আসে। নিজ জেলা এবং জেলার বাইরে থেকে।এক কথায় বলা যায় অসাধারণ একটা জায়গা,যা বলে বোঝানো যাবে না।তাই এই পার্কের ন্যায় মেহেরপুর পৌর কবর স্থান দেখার জন্য আমন্ত্রণ রইলো।

Leave a Reply